1. [email protected] : admin :
মনপুরায় বাধা উপেক্ষা করে দলবেঁধে ছুটে আসছে মানুষ, স্পীডবোট মালিকদের সাথে প্রশাসনের জরুরী বৈঠক | Monpura Times
বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের পত্রিকায় আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন [email protected] অথবা [email protected]

মনপুরায় বাধা উপেক্ষা করে দলবেঁধে ছুটে আসছে মানুষ, স্পীডবোট মালিকদের সাথে প্রশাসনের জরুরী বৈঠক

করোনা সংক্রমণের ভয়ে দেশব্যাপি চলছে লকডাউন। এই সমস্ত লকডাউনের ভয়ে এই উপকেূলের মানুষ যে যেইভাবে পারছে ছুটে আসছে গ্রামে। এমনকি প্রশাসনের সকল বাধা উপক্ষো করে নদী পথে বেশি ভাড়ায় ফিরছে। এতে করে উপকূলের এই দ্বীপে বাসিন্দাদের পাশাপাশি প্রশাসনের কর্মরত কর্মকর্তা ও ডাক্তার-নার্স সহ সকলের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ছে।

এদিকে চট্রগামে একের পর এক লকডাউন শুরু হওয়ায় প্রতি রাতেই হাতিয়া ৪ নং ঘাট (চেয়ারম্যান ঘাট) থেকে হাতিয়ার ট্রলার বোঝাই করে ছুটে আসছে মানুষ। এই দ্বীপের আনুমানিক ৫ হাজার মানুষ চট্রগ্রামের মাঝিরঘাট, চাকতাই, পতেঙ্গা সহ অন্যন্য এলাকায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে। চট্রগ্রামে লকডাউনের পরিধি বাড়লে হাজার হাজার মানুষ ফিরে আসবে বলে জানান দ্বীপে ফিরে আসা অনেকে।

এই খবরে বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, পুুলিশ, কোস্টগার্ড, ইউপি চেয়ারম্যান, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক ও স্পীডবোট মালিকদের নিয়ে জরুরী বৈঠক করেন। এই সময় তিনি কঠোর বার্তার পাশাপাশি সবাইকে একযোগে কাজ করতে অনুরোধ করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মনপুরা প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারনে এই দ্বীপের ট্রলার ও স্পীডবোট বন্ধ রয়েছে। তবে এই সুযোগে হাতিয়ার ৪নং ঘাটের ট্রলার ও স্পীডবোট মালিকরা চড়া ভাড়ায় যাত্রী পারাপাার করছে। এছাড়াও এই দ্বীপের চারপাশে নদী বেষ্ঠিত থাকায় প্রশাসনের নজরদারি করতে হিমশীম খেতে হচ্ছে।

এদিকে,গত বুধবার মাদারীপুরের শিবচর ও ঢাকার মাওয়া থেকে তিনটি ট্রলার ভাড়া করে ১৭৮ জন বাসিন্দা এই দ্বীপে ফিরে আসে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফিরে আসা মানুষদের প্রথমে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রেখে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। তখন ওই প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকা অনেকে অভিযোগ করেন শিবচর ও মাওয়া প্রশাসনের লোকজন তাদেরকে গ্রামের বাড়িতে ফিরতে উৎসাহিত করে।

এই ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপুল চন্দ্র দাস জানান, মনপুরার যাত্রিবাহি ট্রলার ও স্পীডবোট বন্ধ রয়েছে। তবে হাতিয়ার ট্রলার ও স্পীডবোটে ফিরছে মানুষ এমন খবরে পুলিশ ও কোস্টগার্ডকে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাছাড়াও সবাইকে খাদ্য সামগ্রীর বিষয়টি চিন্তা না করে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার পরামর্শ দেন তিনি।

সংবাদটি আপনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি । সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © monpuratimes.com 2020.
Design & Developed BY ThemesBazar.Com